দুটি কবিতা

২৬ আগস্ট ২০২০, ১৫:৪৬
পারভীন রেজা
পারভীন রেজা

১. সুখ তাঁরা


আজ বিষের পেয়ালা হাতে

মনে সুরের মঞ্জুরী বাজাই

দুখের আগুন চেপে

সুখের ফুলকি উড়াই।


দিনে দিনে নিভে গেছে

যে দ্বীপ শিখা-

চাইলেই জ্বলে না আর

হৃদয়ে ভরা ব্যথা।


হয়নি যে ফুল পূজার অঞ্জলী

সে ফুলের ঝরে যাওয়ায়

কি বিরাট দুঃখ জ্বালা-সবাই বুঝবে না

জানে যুগে যুগে দেবদাসী।


নির্বোধ বোঝে না, অধিকার কাকে বলে।

তাইতো নিজের বাগান বিরান করে-

অন্যের বাগানে জল দিয়ে যায়

মন প্রাণ ঢেকে-সব-ই উজার করে। 


খঁশে গেছে কত-সুখ তাঁরা

আকাশের বুক থেকে।।

আর কি পাবো আলো

আন্তর কালিমায় কালো। 


অংকের সংখ্যা ঠিক ঠাক ছিল,

তবুও সরল অংক গেলো না মিলানো।


২. হবেনা সুদূর 


ওগো উদাস আকাশ-

হাত ছানি দিয়ে ডেকেছো

আমি তোমার সাথে-ই

বেঁধেছি আমার ভাগ্য।।


ওগো চঞ্চলা নদী তুমি

এসেছ আমার চোখের সীমানায়

আমি তোমার ধারায় বুঝি

ভাসাই সকল লগ্ন,- ভাসাই অচল চলা’কে।। 


ওগো পাহাড়, তুমি এ ব্যাথা নিয়ে-

হয়েছো কি এমন বিশাল?

পৃথিবী কেন এত বেদনা বিধুর-

জীবনে আসে না তৃপ্ত দুপুর

জানি মেঘ ভাসে রোদ হাসে

আকাশ কত রুপে নিজেরে সাজায়-

মাটি ও তার মত সবুজ বনানীতে-

সুখ খুঁজে বেড়ায়। 


শুধু উদাসী নদীর মতো

আমি রয়ে যাই

বুকে নিয়ে জল রাশি নীরবে হারাই। 


তুমি শিউলির ঝড়ে যাওয়া দেখেছ কভু?

অবেলায় মৃত্তিকায় ঝরে যায়-

যেন এক অভিমানী শুভ্র চাদর

দলে যাও তুলে নাও-সব-ই ইচ্ছে তোমার।।

মন্তব্য লিখুন :