ইমামকে জুতাপেটা করলেন আ'লীগ নেতা, প্রতিবাদে বিক্ষোভ

১৯ জানুয়ারি ২০২১, ০২:৫২
অনুসন্ধান ডেস্ক

ঘরের দরজা বন্ধ করে রাতে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন মসজিদের ইমাম। পাশের বাড়ির এক অনুষ্ঠানের জন্য গরু জবাই করে দেওয়ার জন্য ইমামকে পরপর বেশ কয়েকবার ফোন দেওয়া হয়। ঘুমন্ত ইমাম ফোনটি রিসিভ করতে না পারায়

বিক্ষুদ্ধ হয়ে ওই বাড়ির লোকজন তার ঘরের দরজায় এসে ডাকাডাকি শুরু করেন। ঘরের দরজা খুলতেও বিলম্ব হয় ইমামের। পরে দরজা খোলার পর মসজিদের ইমাম মুফতি মাওলানা মো. আব্দুল মজিদকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করতে

থাকেন স্থানীয় আওয়ীম লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম। বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে ওই ইমামকে জুতাপেটা করেন গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম।

উত্তর চকপাড়া বায়তুন নূর জামে মসজিদের ইমাম মুফতি মাওলানা মো. আব্দুল মজিদকে জুতাপেটা করার প্রতিবাদে সোমবার দুপুরে বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, খতিম, মোয়াজ্জিন, মুসল্লী ও গ্রামবাসী বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, গরু জবাই করে দেওয়ার জন্য শুক্রবার রাত ১২টার দিকে ওই ইমামকে ফোন করা হয়। কিন্তু তিনি ঘুমিয়ে পড়েছিলেন বলে ফোন আর রিসিভ করতে পারেননি। পরে তার ঘরের সামনে এসে ডাকাডাকি করলে তিনি দরজা খুলে দেন। পাশেই একটি রুমে বসবাস করেন আওয়ামী লীগ নেতা রফিক। বিছানা থেকে উঠে এসে ইমামের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন তিনি।

লাঞ্ছনার শিকার ইমাম আ.মজিদ বলেন, কিছু বুঝে উঠার আগেই রফিক তাকে জুতাপেটা শুরু করেন। এ ঘটনার

প্রতিবাদে সোমবার শত শত মানুষ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন। 

অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম জানান, কাজটি তার ঠিক হয়নি। ওই রাতেই ইমাম সাহেবের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি ক্ষমা করেও দিয়েছিলেন। তৃতীয় একটি পক্ষ বিষয়টি জটিল করছে।

মন্তব্য লিখুন :