ছাত্রলীগ নেতা হয়েও ছাড় পেলেন না সৈকত

২৩ অক্টোবর ২০২১, ২১:২৬
রংপুর ব্যুরো

রংপুর পীরগঞ্জের বড় করিমপুর মাঝিপাড়া হিন্দুপল্লিতে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার মো. সৈকত মণ্ডল ছিলেন কারমাইকেল কলেজের দর্শন বিভাগ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি। মাঝিপাড়ার হিন্দুপল্লিতে হামলার পরপরই তাকে কলেজ ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়। তবে কলেজ শাখা ছাত্রলীগ বলছে, সৈকত ছাত্রলীগে 'অনুপ্রবেশকারী'। 

পীরগঞ্জে মাঝিপাড়ায় হামলায় জড়িত বলে অভিযুক্ত সৈকত মণ্ডল ও তার সহযোগী রবিউল ইসলামকে গাজীপুরের টঙ্গী থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব)। শনিবার দুপুরে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন তাদের গ্রেপ্তারের তথ্য জানান। 

সৈকত মণ্ডলের বাড়ি পীরগঞ্জ উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের চেরাগপুর গ্রামে। বাবার নাম রাশেদুল ইসলাম মণ্ডল। পীরগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও শাহ্ আব্দুর রউফ কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন সৈকত। কলেজে পড়ার সময় তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। পরে রংপুর কারমাইকেল কলেজের দর্শন বিভাগ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতির দায়িত্ব পান তিনি।

সৈকতের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাঝিপাড়ায় হামলায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে। 

এদিকে কারমাইকেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগ বলছে, সৈকত ভুয়া প্রত্যয়নপত্র দিয়ে কলেজের দর্শন বিভাগ কমিটির সহ-সভাপতির পদ বাগিয়ে নেন। তিনি আসলে কারমাইকেল কলেজের ছাত্র নন। রংপুর জেলা ও কারমাইকেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি এবং পীরগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি গ্রেপ্তার সৈকত মণ্ডলকে অনুপ্রবেশকারী উল্লেখ করে তার দৃষ্টান্তমৃলক শাস্তি দাবি করেন।  

পীরগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এজেডএম সেকেন্দার আলী বলেন, ‘জীবন বৃত্তান্ত বা পরিচয় না জেনে টাকার লোভে কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করলে এমন ঘটনা ঘটবেই। সৈকত অন্য কলেজের হয়ে কি করে কারমাইকেল কলেজ ছাত্রলীগের কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত হয়?’ ভালোভাবে পরিচয় না জেনে পদ দেওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে কারমাইকেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সম্পাদকের বহিষ্কার দাবি জানান তিনি। 

এদিকে কারমাইকেল কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুজ্জামান সিজার বলেন, ‘অপরাধী যে দলেরই হোক অপরাধ করলে শাস্তি পেতে হবে। আইন সবার জন্যই সমান।’ তিনি বলেন, ‘আমরা পরে জানতে পেরেছি সৈকত ছাত্রলীগে একজন অনুপ্রবেশকারী। এও জানতে পারছি, তিনি কারমাইকেল কলেজের ছাত্রও না। অথচ কমিটি গঠনের সময় কারমাইকেল কলেজের প্রত্যয়নপত্র জমা ছিল। আমরা তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করেছি।’ 

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদি হাসান রনি বলেন, ‘মাঝিপাড়ার ঘটনায় যারাই জড়িত হোক সকলকে বিচারের আওতায় আনতে শেখ হাসিনার কঠোর নির্দেশনা রয়েছে। ’ 

উল্লেখ্য, ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে গত রোববার রাত ১০টার দিকে পীরগঞ্জের রামনাথপুর ইউনিয়নের মাঝিপাড়া, বটতলা ও হাতীবান্ধা জেলেপল্লীর বাড়ি-ঘরে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটে। দল বেঁধে হামলা চালানো হয়।

মন্তব্য লিখুন :