মিয়া খলিফা, আপনাকে অভিবাদন!

১৩ আগস্ট ২০২০, ১৪:১০
কাজী আহমেদ পারভেজ

মাত্র ৩ মাসের এডাল্ট ইন্ডাস্ট্রি ক্যারিয়ারে ১২টি সিকোয়েন্সে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। উপার্জন করেছিলেন সাকুল্যে মাত্র ১২ হাজার ডলার।

তারপরে আর কখনোই ওমুখো হননি, এরপরেও তিনিই গত ৫/৬ বছর ধরে এডাল্ট সার্চ ইঞ্জিনগুলাতে "মোস্ট সার্চড পারসন"।

অথচ চেয়েছিলেন, একজন অচেনা-অখ্যাত পর্ন অংশগ্রহণকারী (স্টার নয়) হয়ে থাকতে, যা ওসব দেশে অনেকেই থাকেন, পরীক্ষামূলক স্বল্প এপিয়ারেন্সের মাধ্যমে...

অবাক কাণ্ড হলো, ওই ১২টা সিকোয়েন্স ঘুরে ফিরে এখনো কোটি কোটি বার দেখা হচ্ছে বিভিন্ন সাইটে। এবং লাখ লাখ ডলার তাতেও আসছে। যদিও তার ভাষ্যমতে, তিনি তার এক কানাকড়িও পান না।

নিজ দেশে তিনি নিষিদ্ধ। আশঙ্কা করছেন, আর কোনোদিনও তাঁর লেবাননে ফেরা হবে না। তারপরেও নিজের দেশ বলে কথা।

নিজের যে দুই-আড়াই মিলিয়ন ডলারের সম্পদ আছে, তার অংশবিশেষ নিয়েই দাঁড়াতে চান দেশের মানুষের দুর্দিনে, তাদের পাশে। একদা "বিশেষ পরিচিতি" পাওয়া তার এই চশমাটি নিলামে তুলেছেন সেজন্যই।

আর স্বল্পসময়ের ব্যবধানে ১১ হাজার ডলার থেকে এটার দাম উঠে যায় এক লাখ ডলারে।

কে কিনছেন?? 

কেন কিনছেন?? 

কি করবেন ক্রেতা এই "সামান্য" চশমাটা দিয়ে??? 

- সেগুলা এখন আর গুরুত্বপূর্ণ না। যেটা গুরুত্বপূর্ণ, তা হলো, দেশের জন্য অনাকাঙ্খিত একজন জন্মসূত্রে লেবাননির দেশের প্রতি দরদ ও দুর্দিনে সহায়তা করার মনভাব নিয়ে এই এগিয়ে যাওয়াটা...

এ নিয়ে অন্যরা যে যাই বলুক, আমি বলবো: "মিয়া খলিফা, আপনাকে অভিবাদন!!!"

মন্তব্য লিখুন :