এক নারীর মেম্বার থেকে উপজেলা চেয়ারম্যান হওয়ার গল্প

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৩৮
নওগাঁ প্রতিনিধি

নওগাঁর রাণীনগরে ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত আসনের সদস্য থেকে বর্তমানে উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হয়েছেন ফরিদা বেগম। তিনি উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন। বর্তমানে তিনি সমাজের অবহেলিত নারীদের কাছে এক অনন্য উদাহরণে পরিণত হয়েছেন। 

গত ২৭জুলাই নওগাঁ-৬ আসনের সাংসদ ইসরাফিল আলমের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। এই আসনে আগামী ১৭ অক্টোবর উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। যার কারণে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন হেলাল। ৩৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ হেলালকে দলীয় মনোনয়ন দিলে শূন্য হয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদ। গত ৯ সেপ্টেম্বর হেলাল পদত্যাগপত্র দাখিল করলে সেই পদে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব প্রদান করা হয় ১ নম্বরে থাকা প্যানেল চেয়ারম্যান ফরিদা বেগমকে। 

সোমবার এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ভাবে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সদ্য বিদায়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন হেলাল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল মামুন, ভাইস চেয়ারম্যান জারজিস হাসান মিঠু, কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শহীদুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেহেদী হাসান, ৮টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফরিদা বেগম বলেন, সবার সার্বিক সহযোগিতায় আজ আমি এই জায়গায় এসেছি। আমি দীর্ঘদিন মেম্বার পদে থেকে মানুষের সেবা করেছি। এরপর মানুষের ভালোবাসায় আর দলের অনুগ্রহে ২০০৯সালে প্রথম উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হয়েছিলাম। আবার সবার সহযোগিতায় গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে পুনরায় ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই। এই দীর্ঘ পথচলায় যার সার্বিক সহযোগিতা পেয়েছি সেই মানুষটি হলেন হেলাল ভাই। সব সময় আমি তার কাছ থেকে ছোট বোনের ভালোবাসা ও সহযোগিতা পেয়েছি। আজ তিনি দল থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন। তার প্রতীক নৌকা মানে আমাদের সবার নৌকা। 

তিনি বলেন, আমরা নৌকার মানুষ। আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে মনে প্রাণে যদি বিশ্বাস করি তাহলে আমাদের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করে আসন্ন উপ-নির্বাচনে নৌকাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করে প্রধানমন্ত্রীকে এই আসনটি উপহার দিতে হবে। হেলাল ভাইয়ের বিজয় মানেই নৌকার বিজয়। তাই আমি আগামীতে পথ চলতে সবার সার্বিক সহযোগিতা চাই। কোন কাজে যদি ভুল হয়ে যায় তা আমাকে ধরিয়ে দিবেন এবং সুধরে নেওয়ার সুযোগ করে দিবেন এই আমার চাওয়া সকলের কাছে।

মন্তব্য লিখুন :